in

চুলের ভালো রঙের জন্য এই ৫টি জিনিস মেহেদিতে মেশাতে পারেন

চুলের ভালো রঙের জন্য ঘরোয়া কিছু পদ্ধতি আছে যেগুলা প্রয়োগ করলে আপনার চুলের রঙ এবং চুল মজবুত করতে সহায়তা করে। আপনি চিলে এই ৫টি জিনিস মেহেদির সাথে মিশিয়ে চিলে প্রয়োগ করতে পারেন। নিশ্চয়ই ভালো ফলাফল পাবেন। আপনি যদি আপনার চুলে মেহেদি লাগাতে পছন্দ করেন তবে এতে এই ৫টি জিনিস মেশালে আপনার চুলের জন্য উপকারী হতে পারে।

কিভাবে মেহেদির দাঁরা চুল রঙিন করা যায়

মহিলারা তাদের চুলের সর্বোচ্চ যত্ন নেয়, কারণ তাদের চুলে তাদের সৌন্দর্য যোগ করতে দেখায়। এমন অবস্থায় চুল খুব ভালো হলে মহিলাদের সৌন্দর্য বাড়ে বলে মনে করা হয়, অন্যদিকে চুল সাদা ও জট থাকলে সুন্দরী নারীর সৌন্দর্যও ফুটে ওঠে না

প্রায়শই কিছু মহিলা অভিযোগ করেন যে মেহেদি লাগানোর পরে তাদের চুল শুষ্ক হয়ে যায়। যদিও বাজারে সাদা চুলে রঙ করার অনেক অপশন আছে, কিন্তু সেসব পণ্য চুলের অনেক ক্ষতি করে। তাই চুলে মেহেদি লাগানোই সবচেয়ে ভালো বিকল্প।

চুলের ভালো রঙের জন্য এই ৫টি জিনিস মেহেদিতে মেশাতে পারেন

আপনি যদি সাদা চুল কালার বা কন্ডিশনার করার জন্য মেহেদি ব্যবহার করেন, তাহলে মেহেদি লাগানোর সঠিক উপায় জানাও জরুরি, তা না হলে আপনার চুল শুষ্ক হয়ে যাবে। মেহেদির কারণে যদি আপনার চুল শুষ্ক হয়ে যায়, তাহলে এই ধরনের চুলের জন্য মেহেদির পেস্ট তৈরি করার সময় এতে কিছু যোগ করলে আপনার চুল শুষ্ক হবে না।

আরও দেখুন>>> 

চলুন জেনে নেওয়া যাক সেই ৫টি জিনিস যা চুলে মেহেদি লাগানোর আগে মেহেদির দ্রবণে মেশাতে পারেন। মেহেদিতে কফি মিশিয়ে চুলে মেহেদির খুব ভালো রং আসে। আপনি এটি পাউডার বা তরল উভয় আকারে ব্যবহার করতে পারেন।

এটি চুলে রঙ করতে এবং সাদা চুল আড়াল করতে সাহায্য করে। তরল হিসাবে ব্যবহার করতে, অল্প জলে কফি যোগ করুন এবং জলটি ভালভাবে ফুটিয়ে নিন। ঠাণ্ডা হওয়ার পর সেই পানি মেহেদি পাউডারে রেখে মেহেদি মিশিয়ে নিন। তারপর সেই পেস্টটি ভালোভাবে চুলে মাখিয়ে দিন এবং মিশ্রণটি শুকিয়ে গেলে মাথা দুয়ে ফেলুন।

মেহেদিতে ডিম মেশান

আসলে ডিমে প্রোটিন, সিলিকন, সালফার, ভিটামিন-ডি এবং ই থাকে যা আপনার চুলে পুষ্টি যোগায়। ডিম চুলে নরম করার প্রভাব ফেলে, বিশেষ করে যাদের শুষ্ক চুল আছে তাদের জন্য এটি খুবই উপকারী। তারা চাইলে এই পদ্ধতিটি চুলে প্রয়োগ করতে পারেন।

ডিমের প্রোটিন উপাদান অর্থাৎ এর হলুদ অংশ চুলকে মজবুত করে এবং সাদা অংশ চুল পরিষ্কার করে। হ্যাঁ, এটি অবশ্যই একটু গন্ধ দেবে, তবে এর ব্যবহারে আপনার চুল আগের চেয়ে নরম, চকচকে এবং সুন্দর দেখাবে। এর জন্য মেহেদিতে ডিমের মাঝের অংশ অর্থাৎ ডিম ভাঙার পর মাঝখানে হলুদ অংশ দেখা যায়।

সেটাকে আমরা কুসুম বলে জানি, সেই কুসুম বাদ দিতে হবে এবং বাকি সাদা অংশটুকু মেহেদি পাউডারের সাথে সুন্দরভাবে মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করতে হবে। পেস্টটি তৈরি হয়ে গেলে চুলের আগা থেকে গোড়া পর্যন্ত ভালোভাবে মেখে নিতে হবে এবং মিশ্রণটি শুকিয়ে গেলে ভালোভাবে মাথা ধুয়ে ফেলতে হবে।

মেহেদিতে চা পাতা মেশান

চুলে রঙ দিতেও মেহেদিতে চা পাতা যোগ করা হয়। এর জন্য পানিতে চা পাতা সিদ্ধ করে মেহেদি গুঁড়ো মিশিয়ে সারারাত এভাবে রেখে দিন। এটি ব্যবহারে চুল শুষ্ক হবে না এবং আগের চেয়ে নরম দেখাবে। চায়ে ট্যানিন উপাদান থাকে যা চুলকে নরম ও ঝলমলে করে, তাই যখনই চুলে মেহেদি লাগাবেন, তাতে কিছু প্রাকৃতিক জিনিস মিশিয়ে নিন যাতে চুল সাদা হওয়ার পাশাপাশি চুলের পুষ্টিও পাওয়া যায়।

মেহেদিতে লেবুর রস মেশান

মেহেদিতে লেবুর রস মেশান

লেবুর রস চুল থেকে খুশকি দূর করতে এবং মাথার ত্বকের ছত্রাকের সংক্রমণ দূর করতে সাহায্য করে কারণ এই ছত্রাকের সংক্রমণ চুলে খুশকি সৃষ্টি করে। এতে করে আপনার মাথার চুল এবং মাথার ত্বক দিনে দিনে দুর্বল হতে থাকে। এ জন্য মেহেদির দ্রবণে লেবুর রস মিশিয়ে মাথার চুলে দিলে, চুলের সাথে মাথার ত্বক ও ভালো হবে।

মেহেদিতে দই মেশান

চুল নরম করতে দই ব্যবহার করা হয়। এছাড়াও, এটি চুলকে উজ্জ্বল করে, যা তাদের আগের থেকে আরও ভাল করে তোলে। চুলে মেহেদি লাগানোর আগে তাতে দই যোগ করলে চুল শুষ্ক হয় না এবং দেখতেও খুব চকচকে হয়।

আপনার কিছু বিশেষ জিনিসের যত্ন নেওয়া উচিত এবং তা হল আপনি যদি মনে করেন যে কোনও উপাদান উপযুক্ত নয়, তবে এটি ব্যবহার করবেন না। অনেক সময় মানুষ বুঝতেই পারে না কিভাবে চুলের যত্ন নিতে হয় এবং কোনটি তাদের জন্য উপযুক্ত এবং কোনটি নয়। প্রত্যেকের ত্বক এবং চুলের ধরন আলাদা এবং ঘরোয়া প্রতিকার ব্যবহারের উপায়ও আলাদা, তাই সাবধান।

পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করবেন। নিত্য নতুন পোস্ট পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি ফলো করুন। পরবর্তিতে কোন বিষয়ে পোস্ট দেখতে চান তা আমাদেরকে কমেন্ট করে জানান। আপনাদের কমেন্টই আমাদেরকে নিত্য নতুন পোস্ট লিখতে উৎসাহিত করে।

ফর্সা ও দাগহীন ত্বক পেতে এই কার্যকরী উপায়গুলো অনুসরণ করুন

ফর্সা ও দাগহীন ত্বক পেতে এই কার্যকরী উপায়গুলো অনুসরণ করুন

বিষন্নতা বা একাকীত্বতা থেকে মুক্তি পাওয়ার উপায়